নিয়োগ

শিক্ষক নিয়োগে ২২০৭ এমপিও পদে আবেদন যেভাবে করবেন

প্রকাশ: ৮ এপ্রিল ২০২১, ২:০ পূর্বাহ্ণ
ফাইল ছবি

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এন্ট্রি লেভেলের ৫৪ হাজার ৩০৪টি পদে শিক্ষক নিয়োগ সুপারিশের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। তবে এ নিয়োগচক্রে ২ হাজার ২০৭টি পদ সংরক্ষণ করা হয়েছে। এ পদগুলো আপিল বিভাগের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে শুধু তথ্য দিয়ে ও আবেদন ফি জমা দিয়ে আবেদন করতে হবে। বাকি ৫২ হাজার ৯৭টি পদে সমন্বিত মেধাতালিকাভুক্ত প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

গত ৩০ মার্চ শিক্ষক নিয়োগ সুপারিশের প্রকাশিত গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। ২ হাজার ২০৭টি পদে আবেদন কীভাবে নেওয়া হবে, সে বিষয়ে গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আপিল বিভাগের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে ২ হাজার ২০৭টি পদ সংরক্ষিত রেখে অবশিষ্ট ৫২ হাজার ৯৭টি পদে তালিকা ১ এপ্রিল প্রকাশ করা হয়। এনটিআরসিএ আরও বলছে, আপিল বিভাগের রায়ে সংরক্ষিত ২ হাজার ২০৭ পদে শুধু মামলার প্রতিকার প্রার্থীদের কোনো ‘চয়েস’ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তাঁরা http://ngiresult.teletalk.com.bd লিংকে প্রবেশ করে চাহিত তথ্য প্রদান করবেন। ১০০ টাকা আবেদন ফি জমা দেবে।  

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ৪ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে অনলাইনে আবেদন করা যাবে। আগামী ৩০ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। ৫৪ হাজার ৩০৪ পদে শিক্ষক নিয়োগের এ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৪৮ হাজার ১৯৯টি এমপিওভুক্ত শূন্যপদ। ননএমপিও পদ আছ ৬ হাজার ১০৫টি। এগুলোর মধ্যে ২ হাজার ২০৭টি এমপিও পদে রিটে অংশগ্রহণ করা নিবন্ধনধারীরাও আবেদনের সুযোগ পাবেন।

ফাইল ছবি

বাকি ৫২ হাজার ৯৭ পদে নিয়োগের জন্য http://ngi.teletalk.com.bd অথবা www.ntrca.gov.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন গ্রহণ করা হবে। অনলাইনে সঠিকভাবে ফরম পূরণ করে সাবমিট করতে হবে। ফরম সাবমিটের পর প্রার্থীদের মোবাইলে এসএমএস পাঠিয়ে টাকা জমা দেওয়াসহ পরবর্তী নির্দেশনা জানিয়ে দেওয়া হবে। আবেদনের ফি ১০০ টাকা।

২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের ১২ জুন এমপিও নীতিমালা জারির আগে সনদ অর্জন করা প্রার্থীরা যাঁদের বয়স ৩৫–এর বেশি হয়ে গেছে, তারাও আবেদনের সুযোগ পাবেন। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ইনডেক্সধারী যেসব শিক্ষক নিবন্ধন সনদধারী কর্মরত আছেন, তাঁরাও অনলাইনে নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে তাঁদের নিয়োগের আবেদনগুলো অন্য প্রার্থীদের মতো জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে বাছাইপূর্বক নিষ্পত্তি করা হবে।

আবেদন যাচাই–বাছাইয়ের পর প্রতিটি পদের বিপরীতে চূড়ান্তভাবে একজনকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করা হবে। এরপর নির্বাচিতদের মোবাইল ফোনে ম্যাসেজের মাধ্যমে সেই তথ্য জানিয়ে দেওয়া হবে। পরে নির্ধারিত ওয়েবসাইটে প্রার্থীদের সুপারিশপত্র প্রকাশ করা হবে।

*বিস্তারিত এখানে দেখুন

Also Read: বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে আবেদনের সুযোগ পাচ্ছেন পঁয়ত্রিশোর্ধ্বরাও