প্রযুক্তি

ভাঁজ করা আইফোন নিয়ে পরীক্ষা শুরু

প্রকাশ: ১৭ নভেম্বর ২০২০, ৭:২৬ পূর্বাহ্ণ
ভাঁজ করা স্মার্টফোনের ধারণা
ভাঁজ করা স্মার্টফোনের ধারণা
ছবি: টুইটার থেকে

ভাঁজ করা স্মার্টফোনের প্রতি আগ্রহ বাড়ছে গ্রাহকদের। স্মার্টফোন নির্মাতারাও বাজারে ছাড়তে শুরু করেছেন ভাঁজ করে পকেটে রাখা যায় এমন ফোন। মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপলই বা পিছিয়ে থাকবে কেন? চীনের ইকোনমিক ডেইলি নিউজ বলছে, ২০২২ সালে ভাঁজ করার সুবিধাযুক্ত আইফোন বাজারে ছাড়তে পারে অ্যাপল।

অ্যাপল তাদের আইফোনগুলো চীনের কারখানায় তৈরি করে থাকে। ইকোনমিক ডেইলি নিউজের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, অ্যাপল সম্প্রতি তাদের ফোল্ডেবল আইফোনের কিছু ইউনিট তাদের আইফোন সংযোজন সহযোগী ফক্সকনের কাছে পাঠিয়েছে। অ্যাপলের লক্ষ্য হচ্ছে, ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর নাগাদ ভাঁজ করা আইফোনের চূড়ান্ত সংস্করণ বাজারে ছাড়ার। সে সময় আইফোন ১৪ সিরিজের সঙ্গে ভাঁজ করা ওই আইফোন ছাড়া হতে পারে।

অ্যাপলের পণ্য তৈরির সঙ্গে পরিচিত সূত্রের বরাতে চীনা সংবাদপত্রটি বলেছে, অ্যাপলের লক্ষ্য হচ্ছে ভাঁজ করার ডিসপ্লে পরীক্ষা করে দেখা। এ ক্ষেত্রে অ্যাপল ওএলইডি বা মাইক্রো-এলইডি প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারে।

সাধারণ কোনো পণ্য উৎপাদন শুরু করার আগে বিশেষ করে ম্যাকবুক প্রো উৎপাদনের আগে তা ২০-৩০ হাজারবার খুলে দেখা ও বন্ধ করা হয়। ভাঁজ করা আইফোনের ক্ষেত্রেও অ্যাপলের পক্ষ থেকে ফক্সকনকে এক লাখ বার খুলে দেখা ও বন্ধ করে দেখতে বলা হয়েছে।

অ্যাপল সম্প্রতি বাজারে আনা আইফোনের ওএলইডি প্যানেলের জন্য স্যামসাংয়ের ওপর নির্ভর করেছে। তারাই ভাঁজ করা আইফোনের প্যানেল সরবরাহ করবে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে অবশ্য অ্যাপলের হাতে অন্য বিকল্পও থাকবে।

অ্যাপলের নতুন আইফোনের নকশা সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি ইকোনমিক ডেইলি নিউজ। তবে আইফোনের তথ্য আগাম ফাঁস করে খ্যাতি পাওয়া টিপস্টার জন পোসের ইতিমধ্যে ভাঁজ করা আইফোনের প্রটোটাইপ প্রকাশ করেছেন। তাতে মাইক্রোসফটের সারফেস ডুয়ো ডিভাইসের মতো আইফোন দেখা গেছে।