বলিউড

মিঠুনের ছেলের বিরুদ্ধে আবার ধর্ষণের মামলা

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২০, ১:১৯ অপরাহ্ণ

ছেলেকে নিয়ে শান্তি পেলেন না মিঠুন চক্রবর্তী। একের পর এক অভিযোগ তাঁর মিমোর বিরুদ্ধে। বারবার বিতর্কে জড়িয়ে সংবাদের শিরোনাম হন এ অভিনেতা। সম্প্রতি আবার বিতর্কে জড়ালেন মহাক্ষয় চক্রবর্তী মিমো। অভিযোগ বেশ গুরুতর। এবার মিমো এবং তাঁর মা যোগিতাবালির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হলো ওশিওয়াড়া পুলিশ থানায়। এক ভোজপুরী অভিনেত্রীকে ধর্ষণ ও জোর করে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ রয়েছে মিমোর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি বেশ কয়েক বছর আগের। তবে মামলাটি সাম্প্রতিক।

সম্প্রতি আবার বিতর্কে জড়ালেন মহাক্ষয় চক্রবর্তী মিমো
সম্প্রতি আবার বিতর্কে জড়ালেন মহাক্ষয় চক্রবর্তী মিমো
ইনস্টাগ্রাম

মিমোর বিরুদ্ধে সরাসরি ধর্ষণের অভিযোগ এসেছে। অন্যদিকে মিমোর মা যোগিতাবালি শুরু থেকেই ছেলেকে বাঁচানোর জন্য ওই নারীকে লাগাতার হুমকি দিয়েছেন বলেও অভিযোগ এসেছে। এই সময়ের প্রতিবেদন অনুসারে, ওই নারী এফআইআরে লিখেছেন, ২০১৫ সাল থেকে মিমোর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তাঁর।

সম্পর্ক থাকার সময়ে মিমো তাঁকে বাড়িতে ডাকেন এবং তরল পানীয়র সঙ্গে নেশার ওষুধ মিশিয়ে তাঁর সঙ্গে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করেন। এরপর ওই ভোজপুরী নায়িকাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন। পরে বহুবার বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রায় তিন বছর ধরে লাগাতার শারীরিক সম্পর্ক বজায় রাখেন মিমো। ওই নায়িকা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে গর্ভপাত করাতে বলেন। না মানলে জোর করে তাঁকে কিছু ওষুধ খাওয়ান মিমো। ফলে সন্তান হারান ওই নারী।

ছেলেকে নিয়ে শান্তি পেলেন না মিঠুন চক্রবর্তী। একের পর এক অভিযোগ তাঁর মিমোর বিরুদ্ধে
ছেলেকে নিয়ে শান্তি পেলেন না মিঠুন চক্রবর্তী। একের পর এক অভিযোগ তাঁর মিমোর বিরুদ্ধে
ইনস্টাগ্রাম

এফআইআরের কপিতে অভিযুক্তর তালিকায় নাম রয়েছে মিঠুন চক্রবর্তীর স্ত্রীরও। তিনি নাকি দুই বছর ধরে মিমোর ওই প্রেমিকাকে হুমকি দিয়েছেন এবং অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য চাপও দিচ্ছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে প্রথম এই ঘটনা সামনে আসে। সেই সময়ই প্রথম মিমোর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন এই ভোজপুরী নায়িকা। ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তারও হতে হয়েছিল মিমোকে। কিন্তু জামিনে ছাড়া পেয়েই প্রেমিকা মাদালসা শর্মার সঙ্গে বিয়ের পর্ব সেরে নেন মিমো। এরপর চক্রবর্তী পরিবারের হুমকির জেরে মুম্বাই থেকে দিল্লি চলে আসেন অভিযোগকারী। সেই সময়ই দিল্লির এক আদালতে মিমো ও যোগিতাবালির বিরুদ্ধে মামলা করেন নির্যাতনের শিকার নারী।

২০১৮ সালের ১০ জুলাই বলিউড তারকা মিঠুন চক্রবর্তী আর যোগিতাবালির বড় ছেলে মিমো বিয়ে করেন দীর্ঘদিনের বান্ধবী মাদালসা শর্মাকে
২০১৮ সালের ১০ জুলাই বলিউড তারকা মিঠুন চক্রবর্তী আর যোগিতাবালির বড় ছেলে মিমো বিয়ে করেন দীর্ঘদিনের বান্ধবী মাদালসা শর্মাকে
ইনস্টাগ্রাম

দিল্লির আদালত সরাসরি জানিয়ে দেন, ধর্ষণের মতো গুরুতর অভিযোগে মিমোর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করতে প্রাথমিক প্রমাণ যথেষ্ট। অভিযুক্তরা প্রভাবশালী, সে কথাও পর্যবেক্ষণে জানান আদালত। অবশেষে মুম্বাইয়ের ওশিওয়াড়া থানায় ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা রুজু হলো মিমোর বিরুদ্ধে।

২০১৮ সালের ১০ জুলাই বলিউড তারকা মিঠুন চক্রবর্তী আর যোগিতাবালির বড় ছেলে মিমো বিয়ে করেন দীর্ঘদিনের বান্ধবী মাদালসা শর্মাকে। সে বিয়ে নিয়েও নানা কাহিনি। সে বছর মিমো আর মাদালসা শর্মার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল ৭ জুলাই রাতে, ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের নীলগিরি জেলার উটির বিলাসবহুল এক হোটেলে। আর সেই হোটেলের মালিক মিঠুন চক্রবর্তী নিজেই।

সেখানেই আয়োজন করা হয় মিমোর বিয়ের অনুষ্ঠান। নির্ধারিত সময়ে হোটেলে চলে আসে বরপক্ষ আর কনেপক্ষ। কিন্তু বিয়ের দিন পুলিশ এসে হানা দেয় হোটেলে। এরপর কনেকে নিয়ে হোটেল থেকে চলে যায় কনেপক্ষ। তখন সংবাদমাধ্যমকে জানানো হয়, মিমোর বিয়ে ভেঙে গেছে। পরে জানা যায়, সেদিন বিয়ে মোটেও ভেঙে যায়নি। রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছিল।

সেদিন বিয়ে মোটেও ভেঙে যায়নি। রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছিল
সেদিন বিয়ে মোটেও ভেঙে যায়নি। রেজিস্ট্রি হয়ে গিয়েছিল
ইনস্টাগ্রাম

২০০৮ সালে ‘জিমি’ ছবির মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রের দুনিয়ায় পা রাখেন মিমো। এখন তাঁর বয়স ৩৫ বছর। মিমো এরই মধ্যে বলিউডের আটটি ছবিতে অভিনয় করেছেন। একটি বাংলা ছবিও করেছেন মিমো। হিন্দি ছবিগুলো হলো ‘জিমি’, ‘দ্য মার্ডার’, ‘হান্টেড’, ‘লুট’, ‘রকি’, ‘এনিমি’, ‘টুক্কা ফিট’ ও ‘ইসকিদরিয়াঁ’। আর বাংলা সিনেমার নাম ‘রকি’।