টেলিভিশন

শিল্পীদের জন্য অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে করোনা ভ্যাকসিন চেয়েছেন ডিরেক্টরস গিল্ডের নেতারা

প্রকাশ: ১৩ জানুয়ারী ২০২১, ১:৪২ অপরাহ্ণ
সমিতির গঠনতন্ত্র মোতাবেক গত ডিসেম্বরে ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল
সমিতির গঠনতন্ত্র মোতাবেক গত ডিসেম্বরে ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল
ছবি:সংগৃহীত

আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ডিরেক্টরস গিল্ডের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে রাজধানীর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে। শিগগির নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করা হবে। নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন কমিশন এবং আপিল বিভাগ গঠন করা হয়েছে। ৯ জানুয়ারি ডিরেক্টরস গিল্ডের দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়।
বাংলাদেশ শিল্পকলা একডেমিতে বেলা তিনটা থেকে শুরু হয় সাধারণ সভা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। সাধারণ সভায় একটি নির্বাচন কমিশন ও আপিল বিভাগ গঠন করা হয়েছে। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব থাকবেন অভিনেতা এবং নাট্যব্যক্তিত্ব এস এম মহসীন। নির্বাচন কমিশনার হিসেবে থাকবেন অনন্ত হীরা ও ঝুনা চৌধুরী। আপিল বিভাগের দায়িত্বে থাকবেন হাসান ইমাম, আবুল হায়াত ও মামুনুর রশীদ।

সাধারণ সভায় একটি নির্বাচন কমিশন ও আপিল বিভাগ গঠন করা হয়েছে
সাধারণ সভায় একটি নির্বাচন কমিশন ও আপিল বিভাগ গঠন করা হয়েছে
ছবি:সংগৃহীত

অনুষ্ঠানের শুরুতেই মন্ত্রীর কাছে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে করোনা ভ্যাকসিন চেয়েছেন ডিরেক্টরস গিল্ডের নেতারা। তাঁরা মন্ত্রীকে জানান, শুটিংয়ে শিল্পী–কলাকুশলীদের সব সময় বড় টিমের সঙ্গে কাজ করতে হয়। শুটিংয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব নয়। প্রস্তাবটি বিবেচনায় রেখেছেন মন্ত্রী। এই সময় ডিরেক্টরস গিল্ডের নেতারা চলচ্চিত্রের মতো নাটকের শিল্পী–কলাকুশলীদের জন্য তহবিলসহ বেশ কিছু দাবির কথা জানান। দাবিগুলো লিখিত আকারে চেয়েছেন মন্ত্রী।
সভায় নির্মাতারা নাটকের বাজেট, শিডিউলের জন্য শুটিং সেটে সেটে নির্মাতাদের ঘোরাঘুরি, অযথা কিছু নির্মাতার বাজেট বাড়িয়ে দেওয়া, নাটকের কপিরাইটসহ বেশ কিছু বিষয়ে তাঁরা কথা বলেন।

ডিরেক্টরস গিল্ডের দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভা
ডিরেক্টরস গিল্ডের দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভা
ছবি:সংগৃহীত

সমিতির গঠনতন্ত্র মোতাবেক গত ডিসেম্বরে ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। দেশের করোনা পরিস্থিতির জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা এই সংগঠনের নির্বাচন স্থগিত করা হয়। সেই সময় সংগঠনের সাধারণ সভা করার জন্যও অনুমতি পাচ্ছিলেন ডিরেক্টরস গিল্ডের নেতারা। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলিক জানান, সংগঠনের পূর্ণকালীন যেকোনো সদস্য নির্বাচন করার জন্য যোগ্য হবেন। তবে তফসিল ঘোষণার পর বেশ কিছু নিয়ম আসতে পারে। তিনি বলেন, ডিরেক্টরস গিল্ডে পরিচালকদের অধিকার আদায়ের একটি সংগঠন। সারা বছর তাঁরা সহকর্মীদের পাশে থাকেন। সেই সংগঠনের নির্বাচন হবে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায়।
এদিকে দক্ষ নেতৃত্বকে সুযোগ দিতে নির্বাচন থেকে আগেই সরে দাঁড়ানোর পরিকল্পনা কথা জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি সালাউদ্দিন লাভলু। ১২ জানুয়ারি কথা বলার সময় ডিরেক্টরস গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক জানান, পরপর দুবার নির্বাচনে তিনি সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন। আগামী নির্বাচনে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না। তিনি মনে করেন, তরুণ নেতৃত্বকে আগ্রাধিকার না দিলে একসময় ডিরেক্টরস গিল্ড নেতৃত্ব–সংকটে ভুগবে।