দূর পরবাস

ইতালির বর, বাংলাদেশি কনে

প্রকাশ: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮:৫৭ পূর্বাহ্ণ
দুই দেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাকে বর ও কনে
দুই দেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাকে বর ও কনে
ছবি: লেখক

বাংলাদেশি তরুণী সুমাইয়ারার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন ইতালির মিলিটারি পুলিশ কর্মকর্তা দুমেনিকো টাম্বুর্রিনু। ১৪ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ-পশ্চিম ইতালির কাপানিয়া অঞ্চলের সালের্নু বিভাগের মাইয়োরি শহরের পালাজ্জো মেজ্জোকাপোকে অনুষ্ঠিত হয় এই আন্তসম্প্রদায় বিয়ে।

ইতালির গণমাধ্যম জানায়, রাজধানী রোম থেকে ৬৯০ কিলোমিটার দূরে উত্তর ইতালির তুরিন শহরে দুজনের মধ্যে প্রথম দেখা ও পরিচয় বছর দেড়েক আগে। বাংলাদেশি তরুণী সুমাইয়ারা সে সময় ওই শহরের একটি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে পড়াশোনা করতেন। ইতালিয়ান বর দুমেনিকোও একই শহরের ক্যারাবিনিয়ারির মার্শাল পদে কর্মরত ছিলেন। ইতালির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়াধীন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মিলিটারি ফোর্সকে স্থানীয় ভাষায় ক্যারাবিনিয়ানি বলে।

ইতালির প্রায় সব সংবাদমাধ্যমে এ বিয়ের খবর ফলাও করে প্রকাশ করে। সম্পূর্ণ ভিন্ন সংস্কৃতিতে বেড়ে ওঠা বর-কনের দেড় বছরের প্রেমের এ পরিণতির ইতিবাচক দিকগুলো তুলে ধরেছে তারা। আড়ম্বরপূর্ণ বিয়েতে বর পরেন তাঁর পেশার রাজকীয় পোশাক আর কনে সাজেন চিরাচরিত বাঙালি সাজ শাড়ি-গয়নায়।

বাংলাদেশের ট্রাডিশানাল পোশাকে নবদম্পতি
বাংলাদেশের ট্রাডিশানাল পোশাকে নবদম্পতি
ছবি: লেখক

বিয়ে অনুষ্ঠানে ইতালীয় বরের আত্মীয়স্বজন উপস্থিত থাকলেও বাংলাদেশি কনের পক্ষে সাক্ষী হিসেবে কেবল তাঁর এক বন্ধুই উপস্থিত ছিলেন। করোনার কারণে বাংলাদেশ থেকে ইতালি ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা থাকায় কনের অভিভাবকেরা বিয়েতে উপস্থিত থাকতে পারেননি। ইতালির আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তার সঙ্গে এটাই সে দেশের বেড়ে ওঠা প্রথম প্রজন্মের বাংলাদেশিদের প্রথম কোনো তরুণীর বিয়ে।