বিশ্ব

করোনায় ৫ লাখ মানুষের মৃত্যু হৃদয়বিদারক: বাইডেন

প্রকাশ: ২৩ েব্রুয়ারি ২০২১, ১:৪ অপরাহ্ণ
যুক্তরাষ্ট্রের করোনার মৃত ব্যক্তিদের স্মরণে হোয়াইট হাউসে মোমবাতি প্রজ্বালন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাঁ থেকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, তাঁর স্ত্রী জিল বাইডেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও তাঁর স্বামী ডগলাস এমহপ
যুক্তরাষ্ট্রের করোনার মৃত ব্যক্তিদের স্মরণে হোয়াইট হাউসে মোমবাতি প্রজ্বালন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাঁ থেকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, তাঁর স্ত্রী জিল বাইডেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও তাঁর স্বামী ডগলাস এমহপ
ছবি: এএফপি

করোনাভাইরাসের মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রের মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়েছে। বিপুলসংখ্যক মানুষের মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে গতকাল সোমবার দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, এই মৃত্যু হৃদয়বিদারক। তিনি মহামারি মোকাবিলায় দেশের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

পরিবারের হৃদয়বিদারক ঘটনার কথা উল্লেখ করে বাইডেন বলেন, ‘আমি জানি স্বজন হারানোর কষ্ট কতটা।’ তিনি বলেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি, যাদের আমরা হারিয়েছি, তাদের স্মরণ রাখুন। দেশের জনগণকে সজাগ থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। পারস্পরিক দূরত্ব বজায় রাখুন, মাস্ক ব্যবহার করুন, টিকা নিন।’

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়ে যাওয়ার পর স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন বাইডেন। এ সময় পাশে ছিলেন তাঁর স্ত্রী জিল বাইডেন, ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও তাঁর স্বামী ডগলাস এমহপ।

এ ছাড়া মহামারিতে নিহত ব্যক্তিদের স্মরণে এদিন হোয়াইট হাউসে ৫০০ মোমবাতি প্রজ্বালন করা হয় এবং ‘অ্যামেজিং গ্রেস’ গানটি বাজানো হয়। এর আগে করোনায় এই মৃত ব্যক্তিদের স্মরণে হোয়াইট হাউসসহ দেশটির সব সরকারি দপ্তর এবং বিশ্বজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসগুলোয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে বাইডেন যেমন মৃত ব্যক্তিদের স্মরণের আহ্বান জানিয়েছেন, তেমনি এই মহামারি মোকাবিলায় পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন। করোনার বর্তমান যে পরিস্থিতি, তা চলতে পারে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বাইডেন বলেন, ‘আমাদের পরিবার এবং আমাদের সমাজের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে যে ধরনের মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে এবং যে রাজনীতি চলছে, তার ইতি অবশ্যই টানতে হবে। সবাই মিলে এক হয়ে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।’

যুক্তরাষ্ট্রের করোনা মোকাবিলায় টিকার ওপর জোর দেওয়ার হচ্ছে। এ ছাড়া বাইডেন প্রশাসন বেশ কিছু পদক্ষেপও নিয়েছে। দেশটিতে সংক্রমণের হার কমে এসেছে। তবে এরপরও গত সোমবার নতুন করে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে প্রায় ৬০ হাজার। আর মারা গেছেন ১ হাজার ৩০০ জনের বেশি রোগী। দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৮৮ লাখের বেশি মানুষ। আর মারা গেছে ৫ লাখ ১২ হাজারের বেশি মানুষ।